ইরানে হামলার দায় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলের: হিজবুল্লাহ

ইরানের সিস্তান-বেলুচিস্তান প্রদেশে সন্ত্রাসী হামলায় যুক্তরাষ্ট্র, ইহুদিবাদী ইসরাইল ও তাদের মিত্রদের দায়ী করছে লেবাননের হিজবুল্লাহ আন্দোলন।

বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তারা দাবি করেছে, যুক্তরাষ্ট্র, ইসরাইল ও তাদের মিত্ররা বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী গড়ে তুলে তাদের দিয়ে হামলা চালাচ্ছে।

ইরানকে বিশ্ব থেকে একঘরে করে রাখতে পোল্যান্ডের ওয়ারশোতে সম্মেলনের নিন্দা জানিয়ে হিজবুল্লাহ বলছে, মার্কিন নেতৃত্বের ওই বৈঠক থেকে স্পষ্ট হচ্ছে ইরানকে অস্থিতিশীল ও অনিরাপদ করতে যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। এভাবেই তারা অপকর্ম চালাচ্ছে।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ এ হামলার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেছেন। এদিকে তেহরানকে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করতে ওয়ারশোতে সম্মেলনের আয়োজন করেছে ওয়াশিংটন।

জাভেদ জারিফ বলেন, যখন ওয়ারশো সার্কাস শুরু হতে যাচ্ছে, তখন এ হামলার ঘটনা কী যুগপৎ না?

আত্মঘাতী বোমা হামলায় ইরানের অভিজাত বিপ্লবী গার্ডসের ২৭ সেনা নিহত হয়েছেন। বুধবার দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় অঞ্চলে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

দেশটির সিস্তান-বেলুচিস্তান প্রদেশে সম্প্রতি সুন্নি মুসলিম সংখ্যালঘুদের হামলা ও হতাহত সংখ্যা বাড়ছেই।

আধা সরকারি সংবাদ সংস্থা ফারসের খবরে বলা হয়েছে, সুন্নি গোষ্ঠী জইশ আল আদল হামলার দায় স্বীকার করেছে। সংখ্যালঘু বালুচিসদের জন্য অধিকতর উন্নত জীবন ও বেঁচে থাকার সুন্দরের পরিবেশের জন্য লড়াই করার দাবি করছে জইশ আল আদল।

ইরানের সামরিক বাহিনীর এই ক্ষয়ক্ষতির মধ্যে বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর জ্যেষ্ঠ নেতা আলী ফাদাভি দেশের শত্রুদের বিরুদ্ধে কড়া হুশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

তিনি বলেন, ইসলামিক বিপ্লবের প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে আমাদের ভূমিকা কেবল নিজ সীমানার মধ্যে আটকে থাকবে না। আগের মতোই শত্রুরা বিপ্লবী গার্ডবাহিনীর কাছ থেকে কঠোর জবাব পাবেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*